পশ্চিমবঙ্গের পার্বত্য অঞ্চলের জলবায়ুর বৈশিষ্ট্য

Submitted by administrator on Fri, 04/03/2015 - 08:20

(১) একমাত্র শিলিগুড়ি মহকুমা বাদে পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং জেলার বাকি অংশ হিমালয়ের পার্বত্য অঞ্চলের অন্তর্গত ।

(২) বেশি উচ্চতায় অবস্থিত হওয়ার ফলে দার্জিলিং জেলার পার্বত্য অংশে পশ্চিমবঙ্গের সমতলভূমির তুলনায় তাপমাত্রা অনেক কম । ফলে গ্রীষ্মকালে পশ্চিমবঙ্গের অন্যান্য অঞ্চলের লোকেরা যখন প্রচন্ড গরমে হাঁসফাঁস  করে, তখন দার্জিলিং পাহাড়ের লোকেরা শীতের হাত থেকে বাঁচতে গরম পোশাক পরে ।

(৩) গ্রীষ্মকালে পশ্চিমবঙ্গের বাকি অংশে যখন অসহ্য গরম, তখন পার্বত্য অঞ্চলের আবহাওয়া খুবই মনোরম থাকে । দার্জিলিং-এর পার্বত্য অঞ্চলের গ্রীষ্মকালীন গড় উষ্ণতা হল ১৫° সেলসিয়াস । এই সময় পার্শ্ববর্তী জলপাইগুড়ি জেলার সমতল অংশে তাপমাত্রা প্রায় ২০° সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকে ।

(৪) শীতকালে দার্জিলিং জেলার পার্বত্য অঞ্চলে প্রচণ্ড ঠান্ডা পড়ে । শীতকালে দার্জিলিং অঞ্চলের তাপমাত্রা মাত্র ২° সেলসিয়াস বা তারও নীচে নেমে যায় । এই অঞ্চলের শীতকালীন গড় উষ্ণতা ২° সেলসিয়াস হলেও, অনেক সময় সর্বনিম্ন উষ্ণতা হিমাঙ্কের নীচে চলে যায় ।

(৫) শীতকালে দার্জিলিং শহর ও তার নিকটবর্তী অঞ্চলে মাঝে মাঝে তুষারপাত হয় ।

(৬) বর্ষাকালে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু সুউচ্চ হিমালয় পর্বতের গায়ে ধাক্কা খেয়ে দার্জিলিং-এর পার্বত্য অঞ্চলে তুমুল শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত ঘটায় । এই জন্য পশ্চিমবঙ্গের অন্য সব অঞ্চলের তুলনায় এই অঞ্চলের গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমাণ অনেক বেশি । বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাত প্রায় ৪০০ সেন্টিমিটার ।

(৭) বর্ষাকালের পর শরৎকাল এলে দার্জিলিং জেলার আবহাওয়া আবার মনোরম হয়ে ওঠে ।

(৮) মনোরম আবহাওয়া ও জলবায়ুর জন্য গ্রীষ্ম ও শরৎকালে সারা পৃথিবী থেকে বহু পর্যটক এই অঞ্চলে বেড়াতে আসেন । তাই এখানকার দার্জিলিং, সান্দাকফু, কালিম্পং, লাভা, মিরিক প্রভৃতি স্থানে বহু পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠেছে ।

***

 

Related Items

পশ্চিমবঙ্গের ঋতুচক্র

পশ্চিমবঙ্গের জলবায়ুকে মোটামুটি চারটি প্রধান ঋতুতে ভাগ করা যায় । যেমন— (১) শুষ্ক গ্রীষ্মকাল,  (২) আর্দ্র গ্রীষ্মকাল, (৩) শরৎকাল ও (৪) শীতকাল । এছাড়া পশ্চিমবঙ্গের বসন্তকাল ও হেমন্তকাল স্বল্পস্থায়ী । তাই পশ্চিমবঙ্গের জলবায়ুর ক্ষেত্রে এদের বিশেষ কোন প্রভাব নেই । বছরের বিভিন্ন ঋতুতে পশ্চিমবঙ্গের জলবায়

ষোড়শ অধ্যায়ঃ পশ্চিমবঙ্গের জলবায়ু

উত্তরে হিমালয় পর্বত থেকে দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের বিস্তার এবং ভূমিরূপের নানান বৈচিত্র্য এই রাজ্যের বিভিন্ন অংশের বায়ুর উষ্ণতা, বায়ু প্রবাহ ও বৃষ্টিপাতের পরিমাণের মধ্যে উল্লেখযোগ্য তারতম্য ঘটিয়েছে । পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ দিক থেকে যতই উত্তর দিকে যাওয়া যায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ততই বাড়তে