সপ্তম অধ্যায় : কতকগুলি ধাতুর উত্স, ধর্ম ও ব্যবহার

Submitted by administrator on Tue, 10/09/2012 - 09:09

☼ অ্যালুমিনিয়াম [Aluminium]:-       

• অ্যালুমিনিয়ামের প্রধান আকরিকগুলি :-

• রাসায়নিক ধর্ম :-

• ব্যবহার :-

☼ ম্যাগনেসিয়াম [Magnesium]:-

• ম্যাগনেসিয়ামের প্রধান আকরিকগুলি :-

• রাসায়নিক ধর্ম :-

• ব্যবহার :-

☼ দস্তা বা জিঙ্ক [Zinc]:- 

• জিঙ্কের প্রধান আকরিকগুলি :-

• রাসায়নিক ধর্ম :-

• ব্যবহার :-

☼ লোহা বা আয়রন [Iron]:-

• আয়রনের প্রধান আকরিকগুলি :-

• রাসায়নিক ধর্ম :-

• ব্যবহার :-

☼ তামা বা কপার [Copper]:-

• কপারের প্রধান আকরিকগুলি :-

• রাসায়নিক ধর্ম :-

• ব্যবহার :-

☼ ধাতু সংকর [Alloys]:-

•  সংকর ধাতুর বৈশিষ্ট্য :- 

•  ধাতু-সংকর প্রস্তুতি :-

•  ধাতু-সংকরের উপযোগিতা :- 

☼ কয়েকটি বিশিষ্ট ধাতু-সংকরের নাম, উপাদান, এবং ব্যবহার

***

 

Related Items

কয়েকটি বিশিষ্ট ধাতু-সংকরের নাম ও ব্যবহার

(১) পিতল - তামা এবং দস্তা, কাঁসা - তামা এবং টিন, ব্রোঞ্জ - তামা এবং টিন, অ্যালুমিনিয়াম-ব্রোঞ্জ - তামা এবং অ্যালুমিনিয়াম, জার্মান সিলভার - তামা, দস্তা এবং নিকেল, ডুরালুমিন - অ্যালুমিনিয়াম, তামা, ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজ, ম্যাগনেলিয়াম - অ্যালুমিনিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম, স্টেইনলেস স্টিল - লোহা এবং ক্রোমিয়াম -এর মিশ্রিত ধাতু সংকর ।

ধাতু সংকর [Alloy]

ধাতু সংকর : দুই বা ততোধিক ধাতু পরস্পর মিশে যে সমসত্ত্ব বা অসমসত্ত্ব মিশ্রণ উত্পন্ন করে, সেই কঠিন ধাতব পদার্থকে ধাতু সংকর বা সংকর ধাতু বলে । যেমন— তামা ও টিনের মিশ্রণে উত্পন্ন কাঁসা হল একটি সংকর ধাতু । অনেক ক্ষেত্রে ধাতু-সংকরে অধাতু থাকতে পারে । যেমন : ইস্পাত হল আয়রন এবং কার্বঁনের সংকর ধাতু । সংকর ধাতুর একটি উপাদান পারদ হলে, তাকে পারদসংকর বা অ্যামালগাম বলে ।

তামা বা কপার [Copper]

তামা বা কপার- রাসায়নিক সংকেত— Cu পারমাণবিক সংখ্যা— 29 পারমাণবিক ভর— 63.5 যোজ্যতা— 1 এবং 2 ঘনত্ব— 8.9 গ্রাম/সিসি গলনাঙ্ক— 1083°C স্ফুটনাঙ্ক —2500°C । অতি প্রাচীন কাল থেকে তামা বা কপারের ব্যবহার চলে আসছে । কানাডার লেক সুপিরিয়রের কাছে এবং সাইবেরিয়ার পর্বতে মুক্ত অবস্থায় তামা বা কপার পাওয়া যায় । বেশির ভাগ ক্ষেত্রে কপারকে বিভিন্ন যৌগরূপে প্রকৃতিতে পাওয়া যায় । কপারের প্রধান আকরিকগুলি হল : [i] কপার গ্লানস (Copper glance) Cu2S, [ii] কপার পাইরাইটিস বা চ্যালকোপাইরাইটিস (Copper Pyrites), Cu2S, Fe2S3 [iii] ম্যালাকাইট (Malakite) CuCO3, Cu(OH)2, [iv] আজুরাইট (Azurite) 2CuCO3, Cu(OH)2 ।

লোহা বা আয়রন [Iron]

লোহা বা আয়রন: সংকেত— Fe পারমাণবিক সংখ্যা— 26 পারমাণবিক ভর— 55.85 যোজ্যতা— 2 এবং 3 ঘনত্ব —7.85 গ্রাম/সিসি গলনাঙ্ক— 1530°C স্ফুটনাঙ্ক —2450°C । আয়রনের প্রধান আকরিকগুলি হল : [i] ম্যাগনেটাইট (Magnetite) Fe3O4, [ii] রেড হেমাটাইট (Red Haematite) Fe2O3, [iii] আয়রন পাইরাইটিস (Iron Pyrites) FeS2 [iv] সিডারাইট (Siderite) FeCO3 । আয়রনকে প্রকৃতিতে মুক্ত অবস্থায় পাওয়া যায় না । পৃথিবীতে বিভিন্ন স্থানে প্রচুর পরিমাণে আয়রনের আকরিক পাওয়া যায় । ভারতের বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা, কর্ণাটক ও অন্ধ্রপ্রদেশে লোহার আকরিক পাওয়া যায় । ভূ-ত্বকে আয়রনের পরিমাণ 4.12 শতাংশ ।

দস্তা বা জিঙ্ক [Zinc]

দস্তা বা জিঙ্ক -এর সংকেত— Zn পারমাণবিক সংখ্যা— 30 পারমাণবিক ভর— 65.5 যোজ্যতা— 2 ঘনত্ব— 7.14 গ্রাম / সিসি গলনাঙ্ক— 419.5°C স্ফুটনাঙ্ক —907°C । জিঙ্ক ধাতুকে প্রকৃতির মধ্যে মুক্ত অবস্থায় পাওয়া যায় না জিঙ্কের প্রধান আকরিকগুলি জিঙ্কাইট (Zincite) ZnO, ক্যালামাইন (Calamine) ZnCO3, জিঙ্কব্লেন্ড (Zincblend) ZnS । জিঙ্কব্লেন্ড জিঙ্কের প্রধান আকরিক । ভারতের রাজস্থান, বিহার, পাঞ্জাব ও তামিলনাড়ুতে জিঙ্কব্লেন্ড পাওয়া যায় ।