দক্ষিণ ভারতের প্রধান নদনদী

দক্ষিণ ভারতের নদনদীগুলোকে প্রধানত দুটি ভাগে ভাগ করা যায়, যথা:- (১) পশ্চিম বাহিনী নদী ও (২) পূর্ব বাহিনী নদী । 

পশ্চিম বাহিনী নদীগুলি আরব সাগরে পতিত হয়েছে ও পূর্ব বাহিনী নদীগুলি বঙ্গোপসাগরে পতিত হয়েছে ।

(১) পশ্চিম বাহিনী নদী :- 

(ক) নর্মদা নদী:- মহাকাল পর্বতের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ অমরকন্টক থেকে উৎপন্ন হয়ে মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র ও গুজরাটের মধ্য দিয়ে বিন্ধ্য ও সাতপুরার সংকীর্ণ গিরিখাত অতিক্রম করে খাম্বাত উপসাগরে (কাম্বে)  পড়েছে । কঠিন শিলাস্তর অতিক্রম করার সময় নর্মদা অনেকগুলি জলপ্রপাতের সৃষ্টি করেছে, এর মধ্যে জব্বলপুরের নিকটবর্তী ভেরাঘাটের নর্মদা জলপ্রপাত উল্লেখযোগ্য । নর্মদা নদীর দৈর্ঘ্য ১৩১০কিমি ।

(খ) তাপ্তি নদী :- মহাদেব পর্বতের মুলতাই এর কাছে প্রায় ৭৭০ মিটার উচ্চতা থেকে উৎপন্ন হয়ে মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র ও গুজরাটের মধ্য দিয়ে সাতপুরা ও অজন্তার মধ্যবর্তী সংকীর্ণ উপত্যকা পার হয়ে সুরাটের কাছে খাম্বাত উপসাগরে পড়েছে । তাপ্তি নদীর দৈর্ঘ্য ৭২৫ কিমি । তাপ্তির প্রধান উপনদী হল পূর্ণা । 

(২) পূর্ব বাহিনি নদী :-

(ক) গোদাবরী :- পশ্চিমঘাট পর্বতমালার অন্তর্গত ত্রিম্বক পাহাড়ের ১৬০০ মিটার উচ্চতা থেকে উৎপন্ন হওয়ার পর পূর্ব দিকে প্রবাহিত হয়ে বদ্বীপ সৃষ্টি করে বঙ্গোপসাগরে পড়েছে । দক্ষিণ ভারতের দীর্ঘতম নদী গোদাবরী এর দৈর্ঘ্য ১৪৬৫ কিমি । এর বাম তীরস্থ উপনদীগুলির মধ্যে প্রাণহিতা, ইন্দ্রাবতীশবরী প্রধান । গোদাবরীর ডান তীরস্থ উপনদীগুলির মধ্যে মঞ্জিরা প্রধান ।

(খ) কৃষ্ণা নদী :- পশ্চিমঘাট পর্বতমালার মহাবালেশ্বরের কিছুটা উত্তরে প্রায় ১৪০০ মিটার উচ্চতা থেকে উৎপন্ন হওয়ার পর দক্ষিণ-পূর্বে প্রবাহিত হয়ে বিশাল বদ্বীপ সৃষ্টি করে বঙ্গোপসাগরে পড়েছে । কৃষ্ণা নদীর দৈর্ঘ্য ১২৯০ কিমি । কৃষ্ণার উপনদীগুলির মধ্যে সীনা, ভীমা, তুঙ্গভদ্রা, মুসী, বেদবতী প্রধান । কৃষ্ণার তীরে বিজয়ওয়াড়া এবং তার উপনদী মুসীর তীরে অন্ধ্রপ্রদেশের রাজধানী হায়দ্রাবাদ অবস্থিত ।

(গ) কাবেরী নদী :- কর্ণাটক রাজ্যের ব্রহ্মগিরি পর্বত থেকে উৎপন্ন হয়ে কাবেরী নদী পূর্ব দিকে প্রবাহিত হয়ে বঙ্গোপসাগরে পড়েছে । কাবেরী নদীর দৈর্ঘ্য ১৫০ কিমি । কাবেরী নদী দক্ষিণ ভারতের অধিবাসীদের কাছে গঙ্গার মতো পবিত্র । কাবেরীর উপনদীগুলির মধ্যে হিমবতী, সিমসাভবানী প্রধান । শিবসমুদ্রম কাবেরীর একটি বিখ্যাত জলপ্রপাত । কাবেরীর তিরে অবস্থিত তিরুচিরাপল্লী একটি বিখ্যাত তীর্থক্ষেত্র । 

(ঘ) মহানদী :- ছত্তিসগড় রাজ্যের রায়পুর জেলার দক্ষিণাংশের সিয়াওয়ার উচ্চভূমি থেকে উৎপন্ন হয়ে মধ্যপ্রদেশ ও ওড়িষ্যার মধ্যে দিয়ে অতিক্রম করার পর বদ্বীপ সৃষ্টি করে বঙ্গোপসাগরে পড়েছে । মহানদীর দৈর্ঘ্য ৮৯০ কিমি । হাঁসদা, মান্দ, ইব প্রভৃতি হল মহানদীর উল্লেখযোগ্য উপনদী । মহানদীর বদ্বীপে অবস্থিত কটক একটি উল্লেখযোগ্য শহর ও শিল্পকেন্দ্র ।

♦  দক্ষিণ ভারতের নদনদীর বৈশিষ্ট্য:- 

(১) কোনোও হিমবাহ থেকে উৎপন্ন না হয়ে এরা ঝর্না জলে পুষ্ট হওয়ায় বর্ষাকাল ছাড়া অন্য সময়ে এই সব নদীতে জল থাকে না বললেই চলে । 

(২) দক্ষিণ ভারতের নদীগুলি বন্যা প্রবণ নয় । 

(৩) খরস্রোতা হওয়ায় দক্ষিণ ভারতের বেশিরভাগ নদী নৌ পরিবহনের উপযোগী নয় ।

***